Tagged: ঢাকার ঈদ

জেমস বার্ক এবং ১৯৫৪ সালের বাংলাদেশ

১৯৫৪ সালের এক ঈদের দিনে ঢাকার রাস্তা।

১৯৫৪ সালের এক ঈদের দিনে ঢাকার রাস্তা।

এক) কাল্পনিক টাইম মেশিনে দেড়’শো বছর পূর্বের বঙ্গদেশ দেখার সুযোগ পেলে কী করবেন? প্রায় এরকমই একটি অভিজ্ঞতা আমার হয়েছে। বাংলাদেশের সুদূর অতীত এবং গোড়ার ইতিহাস আছে ব্রিটিশদের সাথে যুক্ত থাকার কারণে কিছু সুবিধা আমরা পাচ্ছি। ওই সময়টিতে যেসব ব্রিটিশ পর্যটক বা সাংবাদিক এদেশ ভ্রমণ করেছে, তাদের পুরাতন এলবামগুলো পেলে কেমন হয়? ঠিক এমনটাই হয়েছে। প্রায় দু’শো বছরের বাঙালির ইতিহাস নিয়ে সাদাকালো আলোকচিত্রের সন্ধান মিলেছে। অতীত-বিলাসী আমি যেন খনির সন্ধান পেলাম! পাঠকের জন্য শুধু ১৯৫৪ সালের কয়েকটি ছবি নিচে উল্লেখ করলাম। ব্রিটিশ সাংবাদিক জেমস বার্কের তোলা ছবিগুলো চুয়ান্ন সালের ঈদের ছবি। যারা ইতোমধ্যেই তাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়েছেন, তারা জানেনই। বাকিটুকু নিচের উল্লেখিত সূত্র ধরে যে কেউ খুঁজে নিতে পারেন।

১৯৫৪ সালের বাংলাদেশ, অর্থাৎ পূর্ব পাকিস্তান, ছিলো ভাষা আন্দোলন এবং প্রাদেশিক স্বায়ত্বশাসনের দাবিতে তখন সোচ্চার। একটি রাজনৈতিক অস্থিরতার বছর। শেরে বাংলা একে ফজলুল হক এবং আওয়ামী লীগ নেতৃত্বে গঠিত যুক্ত ফ্রন্ট প্রাদেশিক নির্বাচন বিজয়ী হয়। যদিও গভর্নর গোলাম মোহাম্মদ যুক্তফ্রন্টের শাসনকে বেশি দিন স্থায়ি দেন নি, তবু সময়টি ছিলো তাৎপর্যপূর্ণ।

.

১৯৫৪ সালের বাংলাদেশ (পূর্ব পাকিস্তান): 

রিকশায় সন্তানসহ এক দম্পতি।

রিকশায় সন্তানসহ এক দম্পতি।

চুয়ান্ন (১৯৫৪) সালের ঢাকার রাস্তা

চুয়ান্ন (১৯৫৪) সালের ঢাকার রাস্তা

 

 

ঢাকায় চায়ের দোকান

ঢাকায় চায়ের দোকান

 

ঈদের দিনের রাস্তা।

ঈদের দিনের রাস্তা।

 

ফটোগ্রাফার ও ব্রিটিশ সাংবাদিক জেমস বার্ক ঈদের মাঠে কুলাকুলি করছেন, ঢাকা।

ফটোগ্রাফার ও ব্রিটিশ সাংবাদিক জেমস বার্ক ঈদের মাঠে কুলাকুলি করছেন, ঢাকা।

.

.

.

দুই) জেমস বার্ক (২২ ডিসেম্বর ১৯৩৬) একজন বিজ্ঞান-বিষযক ইতিহাসবিদ এবং টেলিভিশন প্রযোজক। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে রম্য প্রামাণ্যচিত্র তৈরি করে তিনি সুনাম কুড়িয়েছেন। ১৯৫৩ সালে নেপাল এবং ১৯৫৪ সালে বাংলাদেশে অবস্থান করে জেমস বার্ক এভারেস্ট জয়ের তথ্য এবং তৎকালীন বাংলাদেশ-এর সামাজিক ও রাজনৈতিক পরিস্থিতির আলোকচিত্র সংগ্রহ করে উপমহাদেশের ইতিহাস সংরক্ষণে বিশেষ অবদান রাখেন।

.

জেমস বার্কের সাম্প্রতিক ছবি।

জেমস বার্কের সাম্প্রতিক ছবি।

তিনি বিবিসি’র একজন প্রতিবেদক হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেন এবং টুমরো’র ওয়ার্ল্ড নামে একটি বিজ্ঞান বিষয়ক ধারাবাহিক পরিচালনা করেন। বিবিসি’র পক্ষ থেকে ঐতিহাসিক চাঁদে অবতরণের ঘটনার (১৯৬৯) প্রধান সংবাদদাতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন জেমস বার্ক। ১৯৮৫ সালে বিবিসিতে ‘যেদিন বিশ্ব বদলে গেলো’ শিরোনামে ডকুমেন্টারি সিরিজ পরিচালনা করেন। ‘কানেকশনস’ তার বেস্টসেলিং গ্রন্থ। জেমস বার্ক নর্দান আয়ারল্যান্ডের লন্ডনডেরিতে (যুক্তরাজ্য) জন্মগ্রহণ করেন এবং বর্তমানে লন্ডনে বাস করছেন।

.

জেমস বার্কের ক্যামেরায় এভারেস্ট বিজয়ী এডমান্ড হিলারি এবং টেনজিং মরগে (১৯৫৩)।

জেমস বার্কের ক্যামেরায় এভারেস্ট বিজয়ী এডমান্ড হিলারি এবং টেনজিং মরগে (১৯৫৩)।

.

.

তথ্যসূত্র:

১) টাইমস হিস্টরি:  http://life.time.com/history/

২) বাংলাদেশ প্রাচীন আলোকচিত্র সংগ্রহশালা: https://www.facebook.com/bd.old.photo.archive

৩) জেমস বার্কের সংক্ষিপ্ত জীবনী: কেমার্কমিডিয়া ডট কম

৪) জেমস বার্কের ডকুমেন্টারি দেখতে চাইলে: http://topdocumentaryfilms.com/james-burke-connections/